বিধবা ভাতার কার্ড চাওয়ায় বৃদ্ধাকে পে’টালেন ইউপি চেয়ারম্যান

জামালপুরে বিধবা ভাতার কার্ড চাওয়ায় এক বৃদ্ধাকে মা’রধরের অ’ভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যানের বি’রুদ্ধে। এ ঘটনায় জামালপুর সদর থা’নায় একটি মা’মলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী। এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বা’স দিয়েছে পু’লিশ।

ভুক্তভোগী হনুফা বেওয়া জানান, ৭ মাস আগে বিধবা কার্ডের জন্য শরিফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইস’লামকে ৫ হাজার টাকা দেন। এখনও কার্ড না পাওয়ায় মঙ্গলবার সকালে চেয়ারম্যানের বাড়িতে যান। এ সময় কার্ড না দিলে, টাকা ফেরত চাওয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী’ ও বৃদ্ধাকে ব্যাপক মা’রধর করেন বলে অ’ভিযোগ ভুক্তভোগীর।

তবে অ’ভিযু’ক্ত চেয়ারম্যান, এ অ’ভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইস’লাম বলেন, সামনে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিরোধী লোকের ইন্ধনে এসব কাজ করছে। এ অ’ভিযোগ ভিত্তিহীন।

নি’র্যাতনের শিকার হনুফা বেওয়া মঙ্গলবার বিকেলে জামালপুর সদর থা’নায় একটি মা’মলা করেন।

অ’তিরিক্ত পু’লিশ সুপার সীমা রানী সরকার বলেন, ইতোমধ্যে আম’রা বিষয়টি জেনেছি। আম’রা আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

অ’ভিযু’ক্ত চেয়ারম্যান বিধবা কার্ড দেয়ার নামে ইউনিয়নের প্রায় ২শ’ জনের কাছ থেকে বিভিন্ন অঙ্কের টাকা নিয়েছেন বলে অ’ভিযোগ স্থানীয়দের