লকডাউনে ১৪০০ কি.মি স্কুটি চালিয়ে ছেলেকে আনেন মা, সেই ছেলে এবার আটকা ইউক্রেনে

By | March 4, 2022

মহামারি করোনাকালীন পরিস্থিতিতে ভারতে যখন লকডাউন চলছিল সেসময় সাহসিকতার জন্য খবরের শিরোনামে আসেন তেলঙ্গানার নিজামাবাদের বাসিন্দা রাজিয়া বেগম। বাড়ি থেকে ৭০০ কি.মি দূরে লকডাউনে আটকা ছেলেকে আনতে একাই স্কুটি নিয়ে বেরিয়ে পড়েছিলেন রাজিয়া।

অনেক বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করে ১৪০০ কি.মি পাড়ি দিয়ে ছেলেকে ফিরিয়ে আনেন রাজিয়া বেগম। ২০২০ সালে ভারতে যখন লকডাউন ঘোষণা করা হয় সেসময় ছেলে মোহাম্মদ নিজামউদ্দিন তার বন্ধুকে ছাড়তে অন্ধ্রপ্রদেশের নেল্লোরে গিয়েছিলেন। এরপর লকডাউনের কারণে সেখানেই আটকা পড়েন তিনি।

পরে ছেলেকে আনতে স্কুটি নিয়ে বেরিয়ে পড়েন রাজিয়া বেগম। ১৪০০ কি.মি পাড়ি দিয়ে ছেলেকে নিয়ে বাড়ি ফিরেন তিনি। তার সাহসিকতা এবং জেদের জন্য কুড়িয়েছিলেন অনেক প্রশংসা। প্রায় দুই বছর পর আবারও আটকে পড়েছেন ছেলে। তবে এবার আর ভারতে নয়। ছেলে আটকা পড়েছেন ইউক্রেনে।

মেডিকেলে পড়ার জন্য ইউক্রেনে পাড়ি দিয়েছিলেন নিজামউদ্দিন। সেখানে রাশিয়ার সীমান্তলাগোয়া শহর সুমি স্টেট মেডিকেল কলেজে প্রথম বর্ষের ছাত্র নিজামউদ্দিন। ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর আগ্রাসন শুরুর পর সেখানে আটকা পড়েন নিজামউদ্দিন।

এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিন কাটছে রাজিয়ার। ইউক্রেনের বিভিন্ন শহর থেকে ভারতীয়রা প্রতিবেশী দেশগুলোতে রওনা দিয়েছে। সেখান থেকে তাদের উদ্ধার করে ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু করেছে ভারত সরকার। কিন্তু ছেলে নিজামউদ্দিন কীভাবে ফিরবেন, সেখানে কী অবস্থায় আছে তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন রাজিয়া। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা