ইউক্রেনকে সহায়তার ঘোষণা দিল চীন

ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর সামরিক অভিযানের ১২তম দিন চলছে। দেশটিতে একের পর এক হামলা চালাচ্ছে রুশ বাহিনী। অভিযানের দিন যত যাচ্ছে হামলা ও বিস্ফোরণ ততই তীব্র হচ্ছে। এবার ইউক্রেনকে অবিলম্বে মানসিক সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে চীন।

সোমবার (৭ মার্চ) চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই ইউক্রেনকে মানবিক সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি বলেন, যত দ্রুত সম্ভব চীনের রেড ক্রস ইউক্রেনকে মানবিক সহায়তা দেবে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

তিনি বলেন, ইউক্রেনের চলমান পরিস্থিতির নেপথ্যের কারণগুলো জটিল। এগুলো রাতারাতি ঘটেনি। এক দিনে তিন ফুট বরফ তৈরি হয় না। চীন ইতোমধ্যেই শান্তি আলোচনার জন্য কিছু কাজ করেছে এবং সব পক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। জটিল সমস্যা সমাধানের জন্য আগুনে ঘি ঢালা এবং সংঘাতকে আরও তীব্রতর করে তোলা থেকে বিরত থাকারও আহ্বান জানান তিনি।

রাশিয়ার সঙ্গে চীনের সম্পর্কের প্রশংসা করে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী দুই দেশের বন্ধুত্বকে ইস্পাতকঠিন হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। এখন পর্যন্ত ইউক্রেনে চলমান রুশ অভিযানকে আগ্রাসন হিসেবে উল্লেখ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে চীন। এমনকি তারা এ অভিযানের নিন্দা জানায়নি।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে রুশ বাহিনী। স্থল, আকাশ ও জলপথে ইউক্রেনে হামলা শুরু করে তারা। তাদের হামলা প্রতিহত করতে লড়াই চালিয়ে যায় ইউক্রেনের সেনারা। ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ নিয়ন্ত্রণে নিতে এগিয়ে যাচ্ছে রুশ বহর।