ফিল্মি স্টাইলে কলেজ শিক্ষিকাকে অপহরণ, অতঃপর…

পটুয়াখালীর দুমকিতে ফিল্মি স্টাইলে কলেজ শিক্ষিকা অপহরণের ৩০ মিনিটের মধ্যে স্থানীয় জনতা অপহরণকারীদের ধাওয়া করে অপহৃতাকে উদ্ধার করেছে। শনিবার বেলা সাড়ে ১২টায় লেবুখালী-বাউফল মহাসড়কের কলেজ গেইট এলাকায় প্রকাশ্যে এ অপহরণ চেষ্টার ঘটনাটি ঘটে।এব্যাপারে ভিকটিম দুমকির এল এ এম ইউনাইটেড মহিলা

কলেজের পদার্থ বিদ্যা বিষয়ের প্রদর্শক তাহেরা আলী বাদী হয়ে তার সাবেক স্বামী সাইফুল্লাহ জাহান মানিকসহ ৭-৮ জনের বিরুদ্ধে দুমকি থানায় একটি অপহরণ চেষ্টার মামলা দায়ের করেছে।মামলার এজাহারে কলেজ শিক্ষিকা তাহেরা আলী রূমা অভিযোগ করেন, কলেজের রুটিন ক্লাশ শেষ করে বেলা সোয়া ১২টায় বাসার উদ্দেশ্যে কলেজ

গেটে যাওয়ার পথে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা তার সাবেক স্বামী সাইফুল্লাহ জাহান মানিক ও তার সহোদর আরিফের নেতৃত্বে ৭-৮ জন তাকে টেনে হিঁচড়ে মাহেন্দ্রয় তুলে লেবুখালীর দিকে যাচ্ছিল। এ সময় তার ডাকচিৎকার শুনে স্থানীয় শ্রীরামপুর ইউপি সদস্য হুমায়ুন কবিরের নেতৃত্বে কয়েকজন অটো ও মোটরসাইকেল চালক ধাওয়া করে

মাহেন্দ্রা আটকে দিলে লালখা ব্রিজ এলাকায় তাকে ফেলে দিয়ে চক্রটি পালিয়ে যায়।ভিকটিম তাহেরা আলী রুমা জানায়, ইউনিয়নের আঠারগাছিয়া গ্রামের মৃত শাহজাহান বিডিআরের ছেলে সাইফুল্লাহ জাহান মানিকসহ তার পরিবারের সদস্যদের অত্যাচার-নির্যাতনে অতিষ্ঠসহ দাম্পত্য কলহের জেরে দুই বছর পূর্বে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। তাদের সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে তিনি দুমকিস্থ ভাড়া বাসায় থেকে নিয়মিত কলেজে চাকরি করছেন।ডিভোর্সের পর থেকেই তার সাবেক স্বামী সাইফুল্লাহ মানিক

নানাভাবে তাকে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল। এ ব্যাপারে দুমকি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করা আছে। থানায় অভিযোগ করার পর থেকেই চক্রটি তাকে জীবনের তরে শেষ করে ফেলার অপচেষ্টা করে আসছে। বর্তমানে তার ছেলে-মেয়েকে নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।দুমকি থানার ওসি মো. আবদুস সালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।